সাত বছর পর কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ফিরছেন নির্মাতা লার্স ফন ট্রিয়ার। তাই প্রতিযোগিতা বিভাগের বাইরের ছবি হওয়া সত্ত্বেও তাঁর এবারের নির্মাণ ‘দ্য হাউস দ্যাট জ্যাক বিল্ট’-এর দিকে নজর ছিল সবার। না জানি কী নিয়ে ফিরছেন দীর্ঘদিন কান থেকে ‘নির্বাসনে’ থাকা এই নির্মাতা। কিন্তু ছবির প্রদর্শনীর পর অনেকেই রীতিমতো শোকে আছেন, হতভম্ব! এমনকি গত সোমবার রাতে ছবিটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী থেকে ছবির মাঝপথেই শ-খানেক দর্শক উঠে চলে যান। প্রত্যাহার করেন মারাত্মক রক্তারক্তি ও নির্মমতায় ভরা ছবিটিকে।

২০১১ সালে সবশেষ মেলানকোলিয়া ছবিটি নিয়ে কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্রে অংশ নিয়েছিলেন ড্যানিশ নির্মাতা লার্স ফন ট্রিয়ার। সেবার ছবির সংবাদ সম্মেলনে এই নির্মাতা হাস্যোচ্ছলে নাৎসিদের প্রতি সহমর্মিতা প্রদর্শন এবং হিটলারের প্রতি মায়া প্রকাশ করায় তাঁকে কান উৎসবে নিষিদ্ধ করা হয়। এ বছরই নিষেধাজ্ঞায় শিথিলতা আনা হয়। তবে নতুন ছবি দ্য হাউস দ্যাট জ্যাক বিল্টকে প্রতিযোগিতা বিভাগের বাইরে রাখায় মনঃক্ষুণ্ন হয়েছেন পরিচালক ট্রিয়ার। তাঁর ভাষায়, ‘নিষেধাজ্ঞায় শিথিলতা এলেও এখনো আমাকে গ্রহণ করতে পারেনি তারা (উৎসব আয়োজক)।’

তবে ছবিটিকে প্রতিযোগিতা বিভাগে যুক্ত না করার ভালো কারণ দেখিয়েছেন কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রধান থিয়েরি ফ্রেমো। তাঁর বিবেচনায় ছবিটি ‘অতি বিতর্কিত’ বিষয়বস্তু নিয়ে তৈরি, যা প্রতিযোগিতা বিভাগে লড়াই করার উপযুক্ত নয়।

‘দ্য হাউস দ্যাট জ্যাক বিল্ট’ ছবিটি একজন সিরিয়াল কিলারের। জ্যাক নামের সেই খুনি মানুষ হত্যা করাকে শিল্প মনে করে। তাই ছবিজুড়ে জ্যাক খুব পৈশাচিকভাবে মানুষ হত্যা করে যায়। এমনকি ছবির একটি দৃশ্যে দেখানো হয়েছে একটি হাঁসের বাচ্চার পা কেটে ফেলার মতো দৃশ্য। নির্মম এই খুনির চরিত্রে অভিনয় করেছেন ম্যাট ডিলন। জ্যাকের নৃশংসতা এতই ভয়াবহ ছিল যে উদ্বোধনী প্রদর্শনী শুরু হলে অনেকেই তা শেষ পর্যন্ত হজম করতে পারেননি, মিলনায়তন থেকে বের হয়ে এসেছেন। এরপর কানের কোয়াজেতের ধার ঘেঁষে শুরু হয় গুঞ্জন-এ কী ছবি বানালেন ট্রিয়ার!

টুইটারে এই ছবি নিয়ে এখন বেশ আলোচনা-সমালোচনা চলছে। ছবিটিতে নৃশংসতা দেখে চিত্র সমালোচকেরাও হয়ে উঠেছেন নৃশংস। দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকার প্রখ্যাত সমালোচক পিটার ব্র্যাড’শ ছবিটিকে ৫ মাত্র ২ দিয়েছেন। অন্যদিকে এক দর্শক প্রেক্ষাগৃহ থেকে বেরিয়ে টুইটে ছবিটিকে বলেছেন, ‘জঘন্য, নিম্নমানের, কুরুচিপূর্ণ, ভয়ংকর, দর্শকদের জন্য একধরনের নির্যাতন!’ ভ্যারাইটি পত্রিকার সাংবাদিক রামিন সেটুডেহ উদ্বোধনী প্রদর্শনী থেকে বেরিয়ে যাওয়া দর্শকদের ছবি দিয়ে টুইটারে লিখেছেন, ‘আমি কোনো চলচ্চিত্র উৎসবে এমনটা হতে দেখিনি। প্রায় ১০০ দর্শক ‘দ্য হাউস দ্যাট জ্যাক বিল্ট’ ছবির প্রদর্শনী থেকে বেরিয়ে গেছে। এতে নৃশংসভাবে নারী ও শিশুদের খণ্ড-বিখণ্ড করা দেখানো হয়েছে। খুব জঘন্য ছবি-এক নারী বেরিয়ে যেতে যেতে এমনটাই বলছিলেন।’

দর্শকের এই প্রতিক্রিয়াকে ইতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন নির্মাতা লার্স ফন ট্রিয়ার। দর্শক ছবি না দেখেই প্রদর্শনী থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে এই নির্মাতা বলেন, ‘সবার মধ্যেই ছবিটি কিছু না কিছু প্রভাব ফেলেছে। এটা ভালো না মন্দ-একে ক্যাটাগরাইজ করতে চাই না। তবে সবাই সবকিছু গ্রহণ করতে পারবে তা তো নয়। যখন কোনো কিছুর দুটি পক্ষ দাঁড়িয়ে যাবে, বুঝতে হবে সেটা সার্থকতা পেয়েছে।’

কিন্তু এই সার্থকতা লার্স ফন ট্রিয়ারকে কতটা এগিয়ে নেবে, তা নিয়ে সংশয় আছে অনেকের। কারণ, নৃশংস এই ছবির নির্মাণ নিয়েই এখন প্রশ্ন তুলেছেন দর্শক। চলচ্চিত্রবিষয়ক সাংবাদিক রজার ফ্রেইডম্যান টুইট করেছেন, ‘জটিলতায় ভরা এমন ছবি নির্মাণেরই কোনো দরকার ছিল না।’ অন্যদিকে আল-জাজিরার সাংবাদিক চার্লি অ্যাঞ্জেলা বলেন, ‘ছোট ছোট বাচ্চাকে পৈশাচিকভাবে হত্যা করাকে বিনোদন হিসেবে উপভোগ করা যায় না। এটা শিল্প বা বিনোদন নয়।’

এত কিছুর পরও লার্স ফন ট্রিয়ার সোমবার ছবির উদ্বোধনী প্রদর্শনী শেষে দাঁড়িয়ে অভিবাদন গ্রহণ করেন। প্রেক্ষাগৃহে অবশিষ্ট দর্শকেরা দাঁড়িয়ে ছবির শিল্পী ও নির্মাতাকে করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানান। তবে এই অভিবাদন দেখে এক দর্শকের করা মন্তব্য প্রকাশ করেছে ভ্যারাইটি সাময়িকীর রামিন। ওই দর্শক নাকি বলেছেন, ‘এখানে তো দেখছি যে কেউই যেকোনো কিছুর জন্যই অভিবাদন পাচ্ছে!’

আরও সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here